কেনার কিছুদিন পর অ্যান্ড্রয়েড চালিত যেকোনো ডিভাইস একটু স্লো হয়ে যাবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এরপরও ইচ্ছে করলেই আপনি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসটির হারিয়ে যাওয়া গতি কিছুটা হলেও ফিরিয়ে আনতে পারেন। আর তাই গত পর্বের ধারাবাহিকতায় এবার থাকছে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসকে ফাস্ট করার বাকি ৫ টি উপায়।

আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসটিকে ফাস্ট করুন


বর্তমানে সবাই সেলফি তুলতে বড্ড ভালোবাসে। এমনকি এই সেলফি তোলার হার এখন এতটাই বেশি যে কোথাও ঘুরতে গেলে এখন রিয়ার ক্যামেরার চাইতে ফ্রন্ট ক্যামেরার ব্যবহারই বেশি দেখা যায়। এই সুযোগে স্মার্টফোন নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোও ফেস বিউটি, শাটার ল্যাগ, এই মোড-সেই মোড দিয়ে বিভিন্ন রকম স্মার্টফোন প্রযুক্তি বিশ্বে উন্মোচন করে ব্যবহারকারীদের তাক লাগিয়ে দিচ্ছে!

ঝাপসা সেলফি? আর নয়!


কেমন হবে যদি দেখা যায়, মঙ্গলগ্রহে সারি সারি ক্ষেতের মধ্যে আলুর ফলন হচ্ছে? শুনতে কল্পকাহিনীর মতো মনে হলেও বিজ্ঞানীরা মঙ্গলে আলুর ফলানোর চেষ্টা করছেন।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা মঙ্গলের মাটিতে বিভিন্ন ধরনের শাক সবজি ফলানোর চেষ্টা করছে। তারা পরীক্ষাটির জন্য সবচেয়ে প্রাণবন্ত বৈচিত্র্য পেতে পেরুর মরুভূমির মাটি ব্যবহার করছে, যেখানকার প্রাকৃতিক ভূমি অনেকটা মঙ্গলের মতো, জানিয়েছে ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড মিরর।

মঙ্গলে হবে আলু চাষ, সঙ্গে লেটুসও!


বাংলাদেশের কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ প্রকল্পের কথা তো সবারই জানা থাকার কথা। সেখানে নদীর স্রোতের গতিশক্তিকে কাজে লাগিয়ে বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা হচ্ছে। এখন যদি সমুদ্রের স্রোত কাজে লাগিয়ে বিদ্যুৎ উৎপন্ন করার কথা বলা হয়, তখন কী হবে? সিএনএন-এর সূত্রমতে, এর মাধ্যমে সারা পৃথিবীর ৭১ শতাংশ বিদ্যুতের চাহিদা পুরণ করা সম্ভব।

সাগরের ঢেউয়ে তৈরি হবে বিদ্যুৎ


১০ কোটিরও বেশি লিংকডইন আইডির লগইন তথ্য বিক্রির প্রচারণা চালাচ্ছেন একজন হ্যাকার। চার বছর আগে থেকে এই আইডিগুলো হ্যাক হওয়া শুরু হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

সে সময়, যেসব অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা লঙ্ঘন হয়েছে বলে ধারণা করা গেছে, সেগুলো 'রিসেট' করা হয়েছে বলে জানায় ব্যবসায়ভিত্তিক এই সামাজিক নেটওয়ার্ক। এবার এই নিরাপত্তা লঙ্ঘনের মাত্রাটা বড় পরিসরে মাপার পরিকল্পনা করছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিক্রি হচ্ছে ফাঁস হওয়া আইডি-পাসওয়ার্ড


বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ইলেকট্রনিক গ্যাজেট সম্ভবত স্মার্টফোন। আর বিশ্বের সব জায়গায়ই একজন ব্যক্তি একটি অথবা দুটি ফোনের মালিক। জরুরি প্রয়োজনে কিংবা ট্র্যাভেলের সময় পাওয়ার ব্যাংক খুবই দরকারি একটি ডিভাইস। আর এই পাওয়ার ব্যাংক সংখ্যায় অনেক রয়েছে। এর মধ্যে খারাপ এবং ভালো দুরকমই রয়েছে। আর পাওয়ার ব্যাংক নির্বাচনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বিষয় হল আপনি কোন ফোনটি ব্যবহার করছেন। এবং সব পাওয়ার ব্যাংক সব ফোনের জন্য সঠিক নয়।

এখানে সঠিক পাওয়ার ব্যাংক নির্বাচনের জন্য কয়েকটি টিপস দেয়া হল


ব্যাটারি ক্যাপাসিটি

বেশিরভাগ মানুষ পাওয়ার ব্যাংক কেনার আগে যে বিষয়টি অগ্রাহ্য করে তা হল ব্যাটারি ক্যাপাসিটি অথবা মিলিঅ্যাম্পিয়ার-আওয়ার। পাওয়ার ব্যাংক কেনার সময় অবশ্যই এর মিলিঅ্যাম্পিয়ার-আওয়ার আপনার ফোনের মিলিঅ্যাম্পিয়ার-আওয়ার এর চেয়ে বেশি হওয়া উচিত। বেশিবার চার্জ দেয়ার জন্য ব্যবহারকারিকে অবশ্যই ১০,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার-আওয়ার চার্জার নেয়া উচিত। এটি ডিভাইসকে অন্তত তিনবার চার্জ করতে পারবে।

বহনযোগ্যতা এবং স্থায়িত্ব

পাওয়ার ব্যাংক সাধারণত জরুরি সময়ে এবং ট্র্যাভেল করার সময় বেশি ব্যবহৃত হয়। তাই এটি হওয়া উচিত রাফ ইউসের উপযোগী। পাশাপাশি এটি পাতলা ও সুবিধাজনক আকারের হওয়া উচিত ফলে এটিকে সবজায়গায় সহজেই বহন করা যাবে। তবে মসৃণ পাওয়ার ব্যাংক কিনলেও একটি বিষয় খেয়াল রাখতে হবে তা হল, এটি শক্ত হওয়া জরুরি যাতে পড়ে গেলে বা যেকোনো সামান্য আঘাতে যেন ডিভাইসটি ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

নিম্ন-গ্রেড পাওয়ার ব্যাংক

পাওয়ার ব্যাংক কেনার ক্ষেত্রে সবচেয়ে কমন যে ভুলটি সবাই করে থাকে, অনেকেই মনে করেন পাওয়ার ব্যাংক কেনার জন্য বেশি টাকা খরচ করে ব্র্যান্ডের ডিভাইস কেনা অতটা জরুরি নয়। কিন্তু নিম্নমানের পাওয়ার ব্যাংকের পারফরম্যান্স খারাপ এবং বিপজ্জনক। কেননা বেশি চার্জিং এ এটি যেকোনো সময় বিস্ফোরিত হতে পারে।

অন্যান্য দিক

আপনি যদি পাওয়ার ব্যাংককে মাল্টি-ইউটিলিটি ডিভাইস হিসাবে ব্যবহার করতে চান তাহলে বাজারে এমন বেশ কিছু পাওয়ার ব্যাংক রয়েছে যেগুলোতে অতিরিক্ত ফিচার হিসাবে ফ্ল্যাশলাইট, ব্যাটারি লেভেল ইন্ডিকেটর, অতিরিক্ত ইউএসবি পোর্ট এমনকি ব্লুটুথ স্পিকারও দেয়া থাকে।

পারফেক্ট পাওয়ার ব্যাংক নির্বাচনের ৪টি টিপস


Network Scope 2G, 3G
Battery Type & Performance Lithium-ion 2500 mAh
Stand-by: up to 240 hours
Talk-time: up to 12.5 hours
Body & Weight 143.5 x 72 x 8.7 millimeter, 149 grams
Camera Factors (Back) Autofocus, dual-LED flash, HDR, face beauty, panorama mode, professional mode, sports mode, smile mode
Camera Resolution (Back) 13 Megapixel
Camera Resolution (Front) 5 Megapixel
Colors Available Ultramarine Blue, Black/Gold, Brown/Gold
Display Size & Resolution 5.0 inches, HD 1280 × 720 pixels (294 ppi)

Display Type IPS Touchscreen
Graphic Processing Unit (GPU) Mali 450 MP4
Memory Card Slot MicroSD, up to 64 GB
Operating System Android Lollipop v5.1
Processor Octa-Core, 1.4 GHz
RAM 2 GB
ROM 16 GB
Release Date May 2016
Sensors G-sensor, accelerometer, light, proximity
SIM Card Type Dual SIM (Micro SIM, dual stand-by)
USB MicroUSB v2.0, USB-on-the-go (OTG)
Video Recording Full HD (1080p)
Wireless LAN Yes
Special Features - Smart Awake, Smart Gesture, Super Power Saving Mode
Other Features - Bluetooth, GPS, A-GPS, MP3, MP4, Radio, GPRS, Edge, Multitouch, Loudspeaker

Symphony H300..Price in Bangladesh: 9,490 Tk.


Network Scope 2G, 3G, 4G
Battery Type & Performance Lithium-polymer 2400 mAh
Stand-by Time: up to 160 hours
Talk Time: up to 24 hours
Body & Weight 143 x 70.3 x 7.9 millimeter, 136 grams
Camera Factors (Back) LED flash, autofocus, BSI, auto face recognition, HDR, panorama, ultra pixel mode, face beauty
Camera Resolution (Back) 8 Megapixel

Walton Primo R4+..Price in Bangladesh: 12,990 Tk.


Network Scope 2G, 3G
Battery Type & Performance Lithium-ion 1850 mAh
Body & Weight 132 x 66 x 9.1 millimeter, 132 grams
Camera Factors (Back) LED flash, autofocus, BSI, auto face recognition, digital zoom, face beauty, HDR, panorama mode
Camera Resolution (Back) 5 Megapixel
Camera Resolution (Front) 2 Megapixel (face beauty, 480p vvideo

Walton Primo GH5 Mini..Price in Bangladesh: 5,690 Tk.


Network Scope 2G, 3G, 4G (LTE)
Battery Type & Performance Lithium-Polymer 2850 mAh (non-removable)
Body & Weight 151.8 x 74.3 x 6.6 millimeter, 145 grams
Camera Factors (Back) Phase detection autofocus, LED flash, f/2.2 aperture, auto face detection
, HDR, panorama mode
Camera Resolution (Back) 13 Megapixel
Camera Resolution (Front) 16 Megapixel (f/2.0, 4x incoming light, 1/3.1 inch image sensor, beautify 4.0, selfie panorama)
Chipset Mediatek Helio P10
Colors Available Gold, Rose Gold
Display Size & Resolution 5.5 inches, Full HD 1080 x 1920 pixels (401 ppi)
Display Type AMOLED Touchscreen with Corning Gorilla Glass 4 protection
Graphics processing unit (GPU) Mali-T860 MP2
Memory Card Slot MicroSD, up to 128 GB (uses SIM 2 slot)
Operating System Android Lollipop v5.1 (Color OS 3.0)
Processor Octa-core, 2.0 GHz
RAM 4 GB
ROM 64 GB
Release Date March 2016
Sensors Accelerometer, proximity, compass, fingerprint
SIM Card Type Dual SIM (Nano-SIM, dual stand-by)
USB MicroUSB v2.0, USB-on-the-go (OTG)
Video Recording Full HD (1080p)
Wireless LAN Yes, WLAN Hotspot, WiFi Direct
Special Features Fast battery charging (VOOC flash charge), fingerprint lock/unlock
Other Features - Bluetooth, GPS, A-GPS, MP3, MP4, Radio, GPRS, Edge, Multitouch, Loudspeaker

Oppo F1 Plus..Price in Bangladesh: 35.900 Tk.


Network Scope 2G, 3G, 4G
Battery Type & Performance Lithium-polymer 3150 mAh
Body & Weight 155 x 76.4 x 7.4 millimeter, 153 grams
Camera Factors (Back) LED flash, autofocus, BSI, aperture f2.0, auto face recognition, face beauty, panorama mode
Camera Resolution (Back) 13 Megapixel (up to 65 MP with Ultra-Pixel mode)
Camera Resolution (Front) 8 Megapixel (BSI, face beauty, auto face recognition, HD video recording)

Chipset -
Colors Available Dark Blue, Golden
Display Size & Resolution 5.5 inches, HD 720 x 1280 Pixels
Display Type Super AMOLED with Corning Gorilla Glass 3 protection
Graphics processing unit (GPU) Mali-T720
Memory Card Slot MicroSD, up to 128 GB
Operating System Android Lollipop v5.1
Processor Octa-core, 1.3 GHz (64-bit)
RAM 3 GB
ROM 16 GB
Release Date May 2016
Sensors Accelerometer (3D), proximity, light, orientation, compass, hall
SIM Card Type Dual SIM (dual stand-by)
USB USB Type-C, USB-on-the-go (OTG)
Video Recording Full HD (1080p)
Wireless LAN Yes, Wi-Fi hotspot
Special Features - Smart Gesture, DTS sound system, Wireless Display Sharing, HotKnot
Other Features - Bluetooth, GPS, A-GPS, MP3, MP4, Radio, GPRS, Edge, Multitouch, Loudspeaker, OTA

Walton Primo NX3+..Price in Bangladesh: 16,490 Tk.


আপনি যত হাই এন্ডের স্মার্টফোনই ব্যবহার করে থাকেন না কেন নিশ্চয়ই কখনও না কখনও আপনার স্মার্টফোনে হ্যাং হয়ে যাওয়া বা, ফ্রিজ হয়ে যাওয়া সমস্যাটির সম্মুখীন হতে হয়েছে আপনাকে। হ্যাঁ, হাই এন্ডের ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসগুলোতেও এই সমস্যাটি দেখা যায়; খুবই কম সংখ্যকবারের জন্য হলেও বেশি মূল্যের স্মার্টফোনেও এই সমস্যাগুলোর দেখা মেলে। আর লো-এন্ডের স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের প্রায়ই এই সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়, যেমন আমাকে। কিন্তু কেন এই ফ্রিজ সমস্যাটি দেখা দেয়? চলুন, সমস্যাটির কারণ এবং প্রতিকার সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।





ফ্রিজ সমস্যার কারণ
প্রথমে চলুন স্মার্টফোনের এই হ্যাং হয়ে যাওয়া বা ফ্রিজিং সমস্যার পেছনের সম্ভাব্য কারণগুলো জেনে নেয়া যাক।



একসাথে অনেকগুলো অ্যাপলিকেশন রান করে রাখলে।
ইন্টারনাল স্টোরেজ পূর্ণ হয়ে গেলে।
এক্সটারনাল স্টোরেজ একেবারে পূর্ণ হয়ে গেলে।
ইন্টারনাল স্টোরেজে বেশি সংখ্যক অ্যাপলিকেশন বা গেম ইন্সটল করা হলে।
কুকি, ক্যাশ এবং লগ ফাইল বেশি জমে গেলে।
অনেক বেশি অ্যাপলিকেশন ইন্সটল করলে।
লো-র‍্যামেও বড় আকারের অ্যাপলিকেশন রান করলে।
ভারী থিম ব্যবহার করলে।
আনসাপোর্টেড বা কম্প্যাটিবল নয় এমন  অ্যাপলিকেশন বা গেম ইন্সটল করলে।
স্মার্টফোনের অ্যানিমেশনের স্কেল বাড়িয়ে ব্যবহার করলে।




ফ্রিজ সমস্যার প্রতিকার
আমরা ফ্রিজ সমস্যার পেছনে কাজ করা সম্ভাব্য কারণগুলো সম্পর্কে জেনে নিয়েছি। এবার চলুন, এই সমস্যা থেকে কীভাবে কিছুটা হলেও প্রতিকার পাওয়া যাবে সেসম্পর্কে জেনে নেই।

যতটুকু সম্ভব আপনার স্মার্টফোনের ইন্টারনাল মেমরি ফাঁকা রাখতে চেষ্টা করুন। এক্ষেত্রে যে অ্যাপলিকেশন বা গেমগুলো মেমরি কার্ডে ইন্সটল করা সম্ভব সেগুলো মেমরি কার্ডে ইন্সটল করুন। এতে করে ইন্টারনাল মেমরির উপর থেকে প্রেশার কমে যাবে। ইন্টারনাল মেমরি ফাঁকা রাখলে ফ্রিজিং প্রবলেম হয় না বললেই চলে।
নোট - তবুও যদি ইন্টারনাল মেমোরিতে বেশ কিছু অ্যাপলিকেশন ইন্সটল হয়ে যায় তবে স্মার্টফোন রুট করে লিংক২এসডি টুলটির সাহায্যে সহজেই সেই অ্যাপলিকেশনগুলোকে আপনি মেমরিকার্ডে ট্রান্সফার করতে পারবেন। তবে যদি আপনি খুবই বেসিক পর্যায়ের ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তবে রুটিং প্রসেসে না জড়ানোই আপনার জন্য শ্রেয় বলে আমি মনে করি।

অপ্রয়োজনীয় অ্যাপলিকেশনগুলো আপনার স্মার্টফোন থেকে আনইন্সটল করে দিন। এর ফলে শুধুমাত্র স্টোরেজই নয় বরং আপনার স্মার্টফোনের কিছু র‍্যাম রিসোর্সও ফাঁকা হবে এবং অ্যান্ড্রয়েডের এই ফ্রিজিং সমস্যাও কিছুটা কমবে।
নোট - যদি অপ্রয়োজনীয় অ্যাপলিকেশনগুলো আপনার পরে লাগতেও পারে বলে মনে করেন তবে সেগুলো না হয় কম্পিউটার বা মেমরি কার্ডে সংরক্ষণ করে রাখলেন যাতে প্রয়োজনের সময় কোন ডাটা সংযোগ ব্যবহার না করেই সেগুলো আবার আপনি খুব সহজেই ইন্সটল করে নিতে পারেন।

এমন কোন অ্যাপলিকেশন বা গেমস ব্যবহার করবেন না যেগুলোর রিকোয়েরমেন্টে যে স্পেসিফিকেশনগুলো চাওয়া হয়েছে সেগুলো আপনার স্মার্টফোনটিতে নেই।
আপনার স্মার্টফোনে র‍্যাম রিসোর্স তুলনামূলক ভাবে কম থাকলে ভারী অ্যাপলিকেশন বা গেম রান করবেন না। এতে করে স্মার্টফোন হ্যাং হবেনা বা কোন ল্যাগ অনুভূত করবেন না আপনি।
বড় কোন অ্যাপ বা গেম রান করার সময় সিস্টেমের অপ্রয়োজনীয় প্রসেসগুলো কিল করে নিতে পারেন। অ্যান্ড্রয়েডে সিস্টেম টাস্ক কিল করার জন্য ডিফল্ট টাস্ক কিলার রয়েছে তবে আপনি চাইলে 'Advance Task Killer' বা 'Easy Task Killer' নামের অ্যাপলিকেশনগুলো ব্যবহার করতে পারেন।
ব্রাউজ করার সময় যথাসম্ভব কম ট্যাব খুলে কাজ করতে চেষ্টা করবেন। কেননা বাজেট স্মার্টফোনগুলোতে বেশি ট্যাব অতিরিক্ত র‍্যাম রিসোর্স ব্যবহার করে থাকে ফলে স্মার্টফোনটি হ্যাং বা ফ্রিজ সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে।
কিছুদিন পরপর বিভিন্ন অ্যাপলিকেশনের কুকি, লগ ফাইল এবং ক্যাশ ফাইলগুলো পরিষ্কার করুন।

অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের হ্যাং (ফ্রিজ) সমস্যা: কারণ এবং প্রতিকার


কম্পিউটার, স্মার্টফোনসহ নানা যন্ত্র এখন আমাদের নিত্যসঙ্গী। আধুনিক এই যন্ত্রগুলো ব্যবহারকারীর সাধারণ অভ্যাসের কথা মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়। বিভিন্ন কাজ করার প্রোগ্রাম বা অ্যাপগুলোও এতটাই সহজভাবে তৈরি করা হয়, যেন যেকোনো বয়সের ব্যবহারকারীই এগুলো সহজে ব্যবহার করতে পারেন। ব্যবহার শুরু করার চেষ্টা করলেই ধীরে ধীরে পুরো বিষয়টি আয়ত্তে চলে আসে। তবে এসব যন্ত্র সাবলীলভাবে ব্যবহার করতে এবং এগুলোর যত্নে কিছু বিষয় জানা থাকা ভালো। তেমন কিছু বিষয় নিয়েই এই আয়োজন।


ব্যবহার করলে কম্পিউটার নষ্ট হয় না
কম্পিউটার ব্যবহার শেখা বা নিয়মিত ব্যবহার করার ক্ষেত্রে একটিমাত্র বিষয় মনে রাখলে খুব দ্রুত সব ধরনের কাজ শিখে ফেলা সম্ভব। আর এই বিষয়টি হলো ব্যবহার করলে কখনো ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন নষ্ট হয় না। ব্যাখ্যা করলে ব্যাপারটা আরও সহজে বোঝা যাবে। কম্পিউটারে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন (অ্যাপ) ব্যবহার করা হয়, একজন ব্যবহারকারী অ্যাপে কী কী কাজ করতে পারবেন, সেটি নির্ধারিত থাকে এর বাইরে কিছু করার চেষ্টা করলে। সে ক্ষেত্রে বার্তার মাধ্যমে দেখানো হয় যে কাজটি সম্ভব নয়। আর এটি প্রায় অসম্ভব একটি ব্যাপার যে কোনো একটি অ্যাপ ব্যবহার করতে করতে কম্পিউটার বা স্মার্টফোন নষ্ট হয়ে যাবে।

যা জেনে রাখা উচিত
কম্পিউটার ব্যবহার শেখার ক্ষেত্রে কিছু বিষয় জানা থাকলে অন্য সব কাজই সহজে হয়ে যায়। নিয়মিত কাজ করার জন্য বিভিন্ন কি-বোর্ডের শর্টকাট মনে রাখলে দ্রুত কাজ করা সম্ভব হয়, যেমন কপি করা (Ctrl+C), পেস্ট করা (Ctrl+V), সেভ করা (Ctrl+S) ইত্যাদি।

অ্যান্টি-ভাইরাস সফটওয়্যার
উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের জন্য উচিত কম্পিউটারে হালনাগাদ করা অ্যান্টি-ভাইরাস ব্যবহার করা। অন্যথায় পেনড্রাইভ, মেমোরি কার্ড বা নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত অন্যান্য কম্পিউটারের মাধ্যমে ভাইরাস, ম্যালওয়্যার বা ক্ষতিকর প্রোগ্রাম চলে আসতে পারে।

ইন্টারনেট ব্যবহার করতে জানা
কম্পিউটারের অন্যান্য কাজ করার পাশাপাশি ইন্টারনেটে যুক্ত হওয়া ও ইন্টারনেট ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে জানা উচিত। ইন্টারনেট হলো এমন একটি জগৎ যেটি দৈনন্দিন অনেক কাজের সঙ্গে যুক্ত। সঠিকভাবে ব্যবহার করলে নতুন বিষয় জানা ও শেখা যায়। যেকোনো বিষয় জানতে ইন্টারনেটে গুগল বা অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনে খোঁজ করলে প্রয়োজনীয় তথ্যসহ লিংক খুঁজে পাওয়া যাবে।
ইন্টারনেট মানেই ফেসবুক নয়। ফেসবুক একটি সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট। উইকিপিডিয়া, ইউটিউব, খান একাডেমিসহ বিভিন্ন বিষয়ভিত্তিক, তথ্যসমৃদ্ধ বহু ওয়েবসাইট রয়েছে। সেসব ওয়েবসাইট থেকে বিভিন্ন বিষয় জানা ও শেখার সুযোগ রয়েছে। তবে যোগাযোগ ও বিনোদনের জন্য ফেসবুকের ব্যবহার ক্রমশ জনপ্রিয় হচ্ছে।

একাধিক ব্যবহারকারীর জন্য একাধিক অ্যাকাউন্ট
নিয়মিত ব্যবহারের ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ কম্পিউটারে যদি একাধিক ব্যবহারকারী থাকেন, তবে নির্দিষ্ট ব্যবহারকারীর জন্য একাধিক অ্যাকাউন্ট তৈরি করা উচিত। এতে প্রত্যেক ব্যবহারকারী কম্পিউটারের অ্যাপগুলো ব্যবহার করতে পারবেন এবং নিজের পছন্দ অনুযায়ী সেটিংস নির্ধারণ করতে পারবেন। ব্রাউজারের বুকমার্ক, ব্যক্তিগত কাজের বিভিন্ন ফাইলও আলাদাভাবে মাই ডকুমেন্টস ফোল্ডারে সংরক্ষণ করা যাবে।

পরিষ্কার স্থানে রেখে ব্যবহার
কিছুদিন আগে পর্যন্তও এমন ধারণা ছিল যে কম্পিউটার সব সময় শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ঘরে রাখতে হবে। এটি সম্পূর্ণ সঠিক না হলেও অবশ্যই ধুলা-ময়লামুক্ত স্থানে রাখা উচিত। এর অন্যতম কারণ হলো কম্পিউটার ব্যবহার করার সময় এটি যেন বেশি উত্তপ্ত না হয়ে যায়, সে জন্য কুলিং ফ্যান চলতে থাকে। ধুলা-ময়লা জমে থাকলে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণের যন্ত্রাংশগুলোর তাপ পরিবহনক্ষমতা কমে যেতে পারে এবং কম্পিউটারটি অকার্যকর হয়ে যেতে পারে।

চার্জার লাগিয়ে ল্যাপটপ ব্যবহার করা
ল্যাপটপ ব্যবহার করার সময় যতটা সম্ভব চার্জার যুক্ত করে ব্যবহার করা উচিত। চার্জার যুক্ত আছে তাই সারাক্ষণ চার্জ হচ্ছে এবং অতিরিক্ত চার্জ হয়ে নষ্ট হয়ে যেতে পারে, এমন ধারণা রয়েছে অনেকের। এটি সঠিক নয়, কারণ ল্যাপটপের চার্জ নিয়ন্ত্রণের জন্য আলাদা সার্কিট থাকে, যেটি নির্ধারণ করে কখন চার্জ হবে আর কখন হবে না। ল্যাপটপে যে ধরনের ব্যাটারি যুক্ত থাকে, সেগুলো সম্পূর্ণরূপে ডিসচার্জ বা চার্জ শেষ করে ফেলা উচিত নয়। দীর্ঘ দিনের জন্য কম্পিউটার ব্যবহার করা হবে না জানা থাকলে সম্পূর্ণরূপে চার্জ দিয়ে তবেই যথাযথভাবে সেটি রাখা।

তারহীন রাউটার
তারহীন ওয়াই-ফাই রাউটারের মাধ্যমে একটিমাত্র ইন্টারনেট সংযোগ থেকে একাধিক ব্যবহারকারী ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন। ধরা যাক, বাসায় একটি ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট যুক্ত করা হলো। এরপর এটি যে কম্পিউটার বা ল্যাপটপের সঙ্গে যুক্ত করা হবে, সেখানে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে। কিন্তু একাধিক ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ থাকলে অথবা যদি স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকেন, তবে সেই ব্রডব্যান্ড সংযোগ দিয়ে কাজ হবে

কম্পিউটার থাকবে ভালো


অনেক সময় নানা কারনে আমাদের ফেবু আইডি লক হয়ে যায়। তখন ফোন নাম্বার দিয়ে ভেরিফাই করে অথবা security question এর উত্তর দিয়ে আবার আইডি ফিরে পাওয়া যায়। কিন্তু এগুলো করে একবার আইডি ফেরত পাবার পর আবার লক হয়ে গেলে তখন Photo Verification করতে হয় যা খুবই বিরক্তিকর।

ফেসবুক আসলে এমনে একটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম যাতে আপনি আপনার আশেপাশের পরিবেশের পরিচিত মানুষদের সাথে যোগাযোগ করবেন। কিন্তু অনেকেই ফেসবুকে নতুন মানুষের সাথে পরিচিত হতে চায়। এর জন্য একজনের ফ্রেন্ডলিস্টে অনেক অপরিচিত মানুষ থাকে যাদের ছবি দেখে চেনা যায়না।
আজ আমি আপনাদের মাঝে যে টিউনটি নিয়ে এসেছি সেটি হলো Photo Verification এর কবল থেকে কিভাবে মুক্ত হবেন।
জাপান আইপি ব্যবহার করে।এ ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি দিয়ে আপনি ৫ মিনিটে আইডি ঠিক করতে পারবেন। যেকোনো জাপান আইপি ব্যবহার করে then M.facebook.com দিয়ে ঢুকবেন। তারপর ক্যপচা পুরন করে ঢুকুন তারপর এশিয়া মহাদেশ সিলেক্ট করে তারপর বাংলাদেশ সিলেক্ট করবেন নাম্বার বসানোর একটা ঘর পাবেন সেখানে একটা নাম্বার বসান তারপর ঐ নাম্বার এ একটা কোড যাবে সেই কোড টা বসালেই কাজ শেষ। আপনি আইডি তে ঢুকতে পারবেন।।পদ্ধতির মধ্যে আপনার আইডি ঠিক হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ্‌। আর যদি কোন আইডি ভোটার আইডি ভেরিফিক্যাসন চাই তাহলে সে ক্ষেত্রে সেই আইডি ঠিক করা অনেক কঠিন হয়ে যায়।

100% গেরান্টি সহকারে মাত্র ৫ মিনিট এ ফেসবুক ফটোভেরিফাই করুন।


অফিসে যেতে যেতে বাসে দেরি হলে অথবা টানা কাজের মাঝে একটু অবসরে কী করেন আপনি? ইন্টারনেট ভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই যুগে নিশ্চয় নিজের ফেসবুক নোটিফিফিকেশনই চেক করেন আপনি। তবে ফেসবুক না ব্যবহার করে টুইটিং, গুগলে সার্চ অথবা ইয়াহুতে স্টকের দাম চেকিং অথবা এরকম কোন সংবাদও যদি পড়েন আপনি তবে তাতে একতরফা ইন্টারনেট বাণিজ্য করতে পারবে না ফেসবুক। বর্তমানে, হোক স্মার্টফোন বা ডেস্কটপ, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের জনপ্রিয়তা ইন্টারনেট ভিত্তিক অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে মাটিতে নামিয়ে আনছে।

ফেসবুকে আপনার আসক্তি এটিকে ক্রমাগত সম্পদশালী করে তুলছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটিতে আপনার আবেগ এবং বুদ্ধিবৃত্তিসংক্রান্ত পদচারণাগুলো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে এটিতে বিজ্ঞাপন দিতে আগ্রহী করে তুলেছে।

বুধবার প্রকাশিত বছরের প্রথমভাগের ফিনান্সিয়াল রেজাল্টে ফেসবুকের এই অর্থনৈতিক সাফল্যের নম্বরগুলো লক্ষ্যণীয়। শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডাতে ইউজারপ্রতি বিজ্ঞাপন থেকে ফেসবুক আয় করেছে ১১.৮৬ মার্কিন ডলার। আর এ কারণে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আপনি যত ফেসবুকে আপনার বন্ধুদের সাথে তর্ক-বিতর্ক করবেন ওদিকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলোও তাদের বিজ্ঞাপন ফেসবুকে দিতে বেশি উৎসাহী হবে।

বছরের প্রথমার্ধ্বে ফেসবুকের আয় ৫০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছিল। তখন এর নেট আয় ২০০ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। বৃহস্পতিবার পুরো মার্কেটে ধ্বস নামলেও ফেসবুকের স্টক স্বউচ্চ ছিল। অ্যাপল, টুইটার গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট বছরের প্রথমার্ধ্বে ভালো সূচনা না করতে পারলেও একমাত্র ফেসবুক যার অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির অবনতি হয়নি। ফেসবুক ভালো করছে কারণ সারা বিশ্বজুড়েই বড় বড় মৌলিক স্পট আছে এটির। আর এগুলো গুগলের থেকেও বড়।

ফেসবুক থেকে গুগল নির্দিষ্ট কিছু ক্ষেত্রে সেরা। সিমিলার ওয়েবের সূত্রানুসারে, মার্চ মাসে ফেসবুকের ২৯.৫ বিলিয়ন ভিজিটর থেকে গুগলের ৩২.৩ বিলিয়ন ভিজিটর ছিল। তাছাড়া মার্চের শেষ অব্দি ১২ মাসজুড়ে গুগলের লভ্যাংশের পরিমাণ ছিল ৭৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সেখানে ফেসবুকের ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার অপেক্ষকৃত কম ছিল। তবে প্রতিষ্ঠানদ্বয় বিজ্ঞাপন থেকে বেশি টাকা আয় করে থাকে।

তবে মানুষ ফেসবুকে বেশি সময় পার করে থাকে। সিমিলার ওয়েবের প্রতিবেদন অনুসারে, পুরো মার্চ মাস জুড়ে ইউজাররা ফেসবুকে গড়ে ১৭ মিনিট সময় ব্যয় করেছে। অথচ গুগলে তার পরিমাণ ছিল ৯ মিনিট। এ জরিপ থেকে বোঝা যায়, মানুষজন কোন সাইটে কতোটা সক্রিয়।

গুগল অনেকদিন ধরেই অনলাইন বিজ্ঞাপন থেকে প্রচুর আয় করেছে। কারণে বেশিরভাগ ইউজারই কোন কিছু ইন্টারনেটে খোঁজার সময় বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে থাকে। তবে ফেসবুক ইউজাররা কোন কিছু কেনার জন্য নেটওয়ার্কে থাকেন না তাই ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য অবশ্যম্ভবী হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ফেসবুকের আরেকটি উপকারিতা হলো এটি গুগলের থেকে অনেক সস্তায় ব্যবহাার করা যায়। যার ফলে খুব সহজেই ডলায় আয় করতে পারে সাইটটি। মার্চ মাস পর‌্যন্ত বিগত বছরে ফেসবুকের অপারেটিং লভ্যাংশ রেভেনিউয়ের ৩৭ শতাংশ ছিল। সেখানে গুগলের ছিল ২৬ শতাংশ। তবে অদূর ভবিষ্যতে যদি নতুন কোন নেটওয়ার্ক অনলাইন জগতে প্রবেশ করে এবং ইউজাররা তাতে মত্ত হয় তবে ফেসবুকের লাভ পড়তে থাকবে। তবে সেরকম কোন হুমকি এখনও পর‌্যন্ত আসেনি। তবে সে পর‌্যন্ত ফেসবুক ব্যবহারের মাধ্যমে মার্ক জাকারবার্গকে সম্পদশালী করতে থাকব আমরা।

ফেসবুককে যেভাবে সম্পদশালী করছেন আপনি