সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভিজিটর আনার জন্য অন পেজ SEO খুব গুরুত্বপূর্ণ। আর এই অন পেজ SEO এর একটি বড় অংশ হলো Meta Tag.আপনার সাইট এ যদি সার্চ ইঞ্জিন হতে ভিজিটর আনতে চান তবে আপনাকে অবশ্যই ম্যাটা ট্যাগ ব্যাবহার করতে হবে। এর ফলে আপনার ব্লগ বা সাইট টি সার্চ ইঞ্জিন ফ্রেন্ডলি হবে। আর ম্যাটা ট্যাগ ব্যাবহার এর জন্য Meta Description & Meta Keyword এর চেয়ে ভালো কোন Html ট্যাগ নাই।(আমার মতে অন্য কারো ভিন্ন মত থাকতে পারে।) এই ট্যাগ দুটি সার্চ ইঞ্জিনকে আপনার সাইট বা বিষয়বস্তু সম্পর্কে বুঝিয়ে দেয়। আর এই ট্যাগ গুলো আপনার সাইট / ব্লগ কে ঠিক ভাবে ইনডেক্স হতে সাহায্য করে। যদিও মেটা ট্যাগ ব্লগের পোস্টে দেখা যায় তবুও এটা সার্চ ইঞ্জিনে অধিক গুরুত্ববহন করে।

Meta Tag কি ? এবং Meta Tag কেনো ব্যবহার করা হয় ?

আমরা অনেকেই আছি হোস্টেড এডসেন্স এবং নন-হোস্টেড এডসেন্সের মধ্যে পার্থক্য কি তা জানি না, বলা যায় কিছুটা বিভ্রান্তি আছে আমাদের মাঝে এই বিষয়টি নিয়ে, আর এই বিভ্রান্তি কাটাতে আমার আজকের এই পোস্টটি পড়ুন এবং জানুন হোস্টেড এডসেন্স এবং নন-হোস্টেড এডসেন্সের মধ্যে পার্থক্য কি ?
যেহেতু আমরা অনেকেই এখন ব্লগ বা ওয়েবসাইট চালাই ,আর এই ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করার জন্য আমরা নানান অ্যাড নেটওয়ার্ক আমাদের ব্লগ বা সাইটে ব্যবহার করে থাকি,আর সেই অ্যাড নেটওয়ার্ক এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি টাকা প্রদানকারি হচ্ছে অ্যাডসেন্স অ্যাড নেটওয়ার্ক ।


অ্যাডসেন্স অনেকে একে সোনার হরিন বলে থাকেন ,কারন কিছু দিন আগেও এডসেন্স পাওয়া ছিলো অসাধ্য প্রায় । কারন কিছু ভাষা ছাড়া অন্য কোন ভাষা অ্যাডসেন্স পাওয়া যেত না । তবে সময়ের সাথে সাথে অ্যাডসেন্স এখন আমাদের মাতৃভাষা বাংলা সাপোর্ট করে ।

হোস্টেড এডসেন্স এবং নন-হোস্টেড এডসেন্সের মধ্যে পার্থক্য কি ?

হাত ফসকে যদি আপনার প্রিয় স্মার্টফোনটি পানিতে পড়ে যায়, একদম ভয় পাবেন না। আগে থেকেই ধরে নেবেন না ফোনটি নষ্ট হয়ে গেছে। এ সময় আপনার উচিত মাথা ঠান্ডা রাখা। খুব শান্ত মনে নীচের নিয়মগুলি মেনে চলুন। দেখবেন, ফোনটির কোনও ক্ষতি হবে না।

কি করবেন আপনার স্মার্ট ফোনটি পানিতে পরে গেলে

যখন আমি ব্লগিং শুরু করি তখন ব্লগ ডিজাইন এবং লেআউট সম্পর্কে আমার তেমন জ্ঞান ছিলনা। সেই সময়ে, আমি আমার ব্লগের ডিফল্ট ব্লগার টেমপ্লেট ব্যবহার করি যা খুব বেশি আকর্ষণীয় নয়। যখন আমি ডিফল্ট ব্লগার টেমপ্লেটগুলিতে পরিবর্তন করতে শিখি এবং কিভাবে ব্লগার ব্লগের টেম্পলেট পরিবর্তন করবেন ? তা আপনার জন্য সহজ করতে আজকের আমার এই টিউটোরিয়াল , এই টিউটোরিয়ালে আপনার কাজটি সম্পুর্ন করতে মাত্র কয়েকটি ক্লিকের প্রয়োজন।

 আপনি যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইট ডিজাইনের টেমপ্লেট পরিবর্তন করতে পারবেন, এটি খুব সহজ। সুতরাং আসুন শুরু করা যাক কিভাবে ব্লগার ব্লগের টেম্পলেট পরিবর্তন করবেন ? তা জানতে নিচের পদক্ষেপ গুলো অনুসরণ করি।

 কিভাবে ব্লগার ব্লগের টেম্পলেট পরিবর্তন করবেন ? 


 কোনও তৃতীয় পক্ষের টেমপ্লেট পেতে, শুধু google- এ সার্চ করুন free Blogger template - লিখে এবং আপনি  বিভিন্ন বিনামূল্যের সাইট দেখতে পাবেন তা ছাড়া আপনি টাকা খরচ করেও টেম্পলেট কিনতে পারেন ওয়েব ডেভেলপারদের কাছ থেকে। আপনার পছন্দ মত কোন টেমপ্লেট ডাউনলোড করুন।

১:- প্রথমত, আপনার ব্লগার অ্যাকাউন্টে লগ ইন করুন।

২:- ড্রপ ডাউন মেনুতে ক্লিক করুন এবং টেমপ্লেট নির্বাচন করুন।

৩:- উপরে ডানদিকের কোণায় অবস্থিত ব্যাকআপ / পুনরুদ্ধার বাটনে ক্লিক করুন

৪:- তারপর আপনি একটি ব্যাকআপ হিসাবে আপনার বিদ্যমান টেমপ্লেট ডাউনলোড করুন (এটা জরুরি) এখন " Download full template " বাটনে ক্লিক করুন।

৫:- এবার Choose File বাটনে ক্লিক করুন এবং আপনার নতুন টেমপ্লেটটি নির্বাচন করুন যা আপনি আপনার ব্লগে প্রয়োগ করতে চান।

৬:- একবার আপনি আপনার টেমপ্লেটটি নির্বাচন করলে, চূড়ান্ত পদক্ষেপের জন্য আপলোড বাটনে ক্লিক করুন।

৭:- আপনার কাজ গুলো শেষ হয়েছে।

আশাকরি আপনি সঠিক ভাবে সব গুলো পদক্ষেপ অনুসরণ করে শিখতে পেরেছেন কিভাবে ব্লগার ব্লগের টেম্পলেট পরিবর্তন করবেন ? । যদি কোনো সমস্যায় পড়েন তবে কমেন্ট করে আমায় জানাবেন, 

কিভাবে ব্লগার ব্লগের টেম্পলেট পরিবর্তন করবেন ?

আপনার ব্লগে একটি কাস্টম ডোমেন যোগ করলে আপনার ব্লগ প্রফেশনাল ব্লগের মত হয় এবং সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে আপনার র‍্যাংক বৃদ্ধি পাবে। আপনার ব্লগার ব্লগটিতে একটি কাস্টম ডোমেন যুক্ত করলে, আপনার ব্লগ এড্রেসটি  yourblog.blogspot.com  থেকে আপনার ব্লগ,
 yourblog.tk, yourblog.net, yourblog.com  অথবা আপনি যে ডোমেন এক্সটেনশনটি নিবন্ধন করেছেন সেটাতে পরিবর্তন হবে ।

কিভাবে freenom ডোমেইনস (.cf, .tk, .ml, .gq, .ga,) ব্লগারে এড করবেন ?

ব্লগার ব্যবহারকারীরা, আপনারা এই আর্টিকেলটি সঠিকভাবে পড়েন।কারন ব্লগার কাস্টম ডোমেনের ফ্রি SSL (https) চালু করেছে। তাই এখন থেকে, আপনি সহজে ব্লগার থেকে সরাসরি বিনামূল্যে SSL সার্টিফিকেট পেতে পারেন। পূর্বে, ব্লগার শুধুমাত্র ব্লগস্পট উপ ডোমেইনগুলির জন্য SSL সমর্থন করতো এবং যদি আমরা আমাদের ব্লগার কাস্টম ডোমেনের জন্য নিরাপদ https (SSL) ব্যবহার করতে চাই তবে আমাদের অবশ্যই এটি SSL প্রদানকারীর কাছ থেকে কিনে নিতে হবে, কিন্তু এখন থেকে Google এর ব্লগার নিজেই নিজস্ব ডোমেনের জন্য SSL সার্টিফিকেট প্রদান করছে ফ্রিতে । তাহলে আপনি কেনো অপেক্ষা করছেন ? আসুন আমরা তার সুবিধাগুলি পরীক্ষা করে দেখি এবং কীভাবে আপনি আপনার ব্লগে HTTPS অন করতে পারেন এবং আপনার ব্লগার ব্লগকে আরো নিরাপদ করে তুলতে পারেন। আমাদের ব্লগে ফ্রি SSL সার্টিফিকেট ব্যবহারের আগে, আমাদের অবশ্যই অবশ্যই SSL কি তা আগে জানতে হবে এবং কিভাবে এটা আমাদের উপকারী হতে পারে।

কিভাবে ব্লগারে ফ্রি SSL (HTTPS) চালু করবেন কাস্টম ডোমেইন এর জন্য

আমাদের ব্লগ র‍্যাংক ভাল অবস্থানের জন্য আমরা এসইও করি এবং এটি অপ্টিমাইজ করা প্রয়োজন। সার্চ ইঞ্জিনগুলি থেকে অর্গানিক ট্র্যাফিক পেতে খুব ভাল এসইও এর প্রয়োজন। আপনার ব্লগে Custom Robots.txt File এড করা হলো এসইও এর জন্য একটি বড় পদক্ষেপ। এটি সার্চ ইঞ্জিন ক্রলারকে কোন পৃষ্ঠাটি ক্রল করবে আর কোনটি করবেনা তা সম্পর্কে বলে দেয়। ব্লগারে (ব্লগস্পট) আমাদের প্রয়োজন অনুযায়ী robots.txt ফাইল কাস্টমাইজ করার অপসন আছে। কিন্তু প্রথমে আপনার এই কাজটি শুরু করার আগে robots.txt ফাইলটি সম্পর্কে জানতে হবে। সুতরাং টিউটোরিয়াল শুরু করা যাক।

কিভাবে ব্লগারে Custom Robots.txt File এড করবেন ?

 popular post widget  আপনার ভিজিটরদের আপনার দেওয়া জনপ্রিয় আর্টিকেল গুলি নজরে রাখে এবং সরাসরি আপনার ব্লগের সাইডবার থেকে popular post এ ভিজিট করে থাকে। এই সুবিধাগুলির পাশাপাশি, ব্লগারের জনপ্রিয় পোস্ট উইজেটের কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে সে কারনে এটি এত আকর্ষণীয় নয়। তাই এই টিউটোরিয়ালে, আমি আপনাকে আপনার জনপ্রিয় পোস্ট উইজেট আকর্ষণীয় এবং পেশাদারী এবং আপনার ব্লগের টেমপ্লেট অনুযায়ী এটি কাস্টমাইজ করতে গাইড করব। সুতরাং আসুন আমরা টিউটোরিয়ালটি শুরু করি কিভাবে আপনি সহজেই আপনার ব্লগস্পট ব্লগে একটি আকর্ষণীয় popular post widget এড করতে পারেন।

কিভাবে ব্লগারে popular post widget এড করবেন ?